×
  • নজরে
  • ছবি
  • ভিডিও
  • আমরা

  • অনলাইন বিয়ে! 

    শুভস্মিতা কাঞ্জী | 19-01-2022

    নিজস্ব ছবি।

    স্কুল, কলেজ, এমনকি অফিসটাও অনলাইনে হচ্ছে, তাহলে বিয়ে নয় কেন বলুন তো? চমকে উঠলেন? বিয়ে, তাও অনলাইনে? আজ্ঞে হ্যাঁ, বহুদিন ধরে যে মিম সোশাল মিডিয়ায় ঘুরপাক খাচ্ছিল, সেটাই বর্তমানে বাস্তব হতে যাচ্ছে। অনলাইনে বিয়ে দেখবে এবার ভারতবাসী। 

     

    গত বছর বর্ধমানের সন্দীপন সরকার এবং অদিতি দাসের বিয়ে ঠিক হয়। তখন করোনার এত বাড়বাড়ন্ত নেই। সব ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছে। সেই মতোই সব প্ল্যান করা, নিমন্ত্রণ করা। কিন্তু বছর ঘুরতেই ছবি বদলাল। পাত্র স্বয়ং করোনা আক্রান্ত হয়ে হসপিটালে ভর্তি হলেন। এদিকে দেশ জুড়েও বাড়তে থাকল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। রাজ্য সরকার বিধিনিষেধ আনল, বিয়েতে মাত্র 50 জন। এবার? নিমন্ত্রিত যে বহু। কাকে বাদ দিয়ে কাকে রাখি অবস্থা। যে সমস্যায় কম বেশি সব পাত্র পাত্রীদেরই পড়তে হচ্ছে, সন্দীপন অদিতিকেও সেই সমস্যায় পড়তে হল। তখনই সন্দীপনেরা বুদ্ধি আঁটেন, যদি ক্লাস, অফিস অনলাইনে হতে পারে তাহলে বিয়ে নয় কেন? 

     

    প্রথমে বাড়ির লোক না মানলেও পরে সবাই মানেন। সোশাল মিডিয়ায় এই কথা জানানোর পর দারুন সাড়া পান তাঁরা। এরপরই সব পরিকল্পনা করা হয় নতুন করে। দুই বাড়ির 50+50, মোট 100 জন বিবাহ বাসরে উপস্থিত থাকবেন। বাকি নিমন্ত্রিতরা অনলাইনে বিয়ে দেখবেন। ভার্চুয়ালি আশীর্বাদ দেবেন। সঙ্গী? গুগল মিট। সে তো নয় বিয়ে দেখল অনলাইনে, কিন্তু খাবার? সেটারও ব্যবস্থা করেছেন ওঁরা। অনলাইন ফুড ডেলিভারি অ্যাপ, জোম্যাটোর সঙ্গে জোট বাঁধেন সন্দীপন-অদিতি। তাঁরাই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা আমন্ত্রিতদের কাছে পৌঁছে দেবেন খাবার। এক্ষেত্রে জোম্যাটো নিজেই ওঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করে, এবং জানায় তারা এই অভিনব বিয়েতে অংশ নিতে চায়। 

     

    আগামী 24 জানুয়ারি ওঁরা সাত পাকে বাঁধা পড়বেন, আর এই অভিনব বিয়ের সাক্ষী থাকবে গোটা দেশ। কী ভাবে? আমন্ত্রিতদের জন্য একটি লিংক তৈরি করা হবে, আরেকটি লিংক থাকবে বাকিদের জন্য যাঁরা এই বিয়ে দেখতে চান। এখন সময়ের অপেক্ষা এই অভিনব বিয়ে চাক্ষুষ করার। 

     


    শুভস্মিতা কাঞ্জী - এর অন্যান্য লেখা


    সাধারণ মানুষের জীবনের গল্প বলে ‘মাসালা স্টেপস’।

    জয় শ্রীরাম বনাম জয় বাংলা ধর্মীয় সত্তার রাজনীতি বনাম ভাষা সত্তার রাজনীতি

    যেন গায়ের রং কালো হলে কাউকে দেখতে সুন্দর হতে পারে না।

    নিউ নর্মালে সবই কেমন যেন বদলে যাচ্ছে, বদলে গেছে চেনা আড্ডা, চেনা জায়গাগুলো।

    বরাবর যে বর্ণবৈষম্য চলে আসছে তার ছাপ করোনা সংক্রমণের হারেও পড়েছে এবং ফল হিসেবে প্রাণ হারিয়েছেন বহু

    দু’জন অপরিচিত মানুষ একই স্বপ্ন দেখতে পারেন? সম্ভব সেটা?

    অনলাইন বিয়ে! -4thpillars

    Subscribe to our notification

    Click to Send Notification button to get the latest news, updates (No email required).

    Not Interested