×
  • নজরে
  • ছবি
  • ভিডিও
  • আমরা

  • অপরিকল্পিত নগরায়নের ফল আর্বান সিঙ্কহোল

    শুভস্মিতা কাঞ্জী | 24-06-2021

    আর্বান সিঙ্কহোল।

    এখন যা আছে পরের মুহূর্তেই যদি তা স্রেফ নেই হয়ে যায়? কোনও নোটিশ, আগাম পূর্বাভাস ছাড়া তবে? বাড়ি, গাড়ি, সম্পত্তি, মানুষ পর্যন্ত পৃথিবীর সেই অতল গহ্বরে তলিয়ে যায়? ভাবছেন, তা আবার হয় নাকি? তেমন হলে একটু তো পূর্বাভাস পাওয়া যাবেই। আজ্ঞে না, সিঙ্কহোল এমনই এক বস্তু যা মাটির নিচে ধীরে ধীরে তৈরি হলেও তা আত্মপ্রকাশ করে এক লহমার মধ্যে, এবং অধিকাংশ সময়ই ভয়ঙ্কর ভাবে। যার পূর্বাভাস আমরা মোটেই আগে থেকে পেতে পারি না। অতি সম্প্রতি মুম্বইয়ের একটি আবাসনের পার্কিং লটের একটি গাড়ি যেমন নিমেষের মধ্যে গভীর গর্তে তলিয়ে গিয়েছিল।

     

     

    সিঙ্কহোল কী? সিঙ্কহোল হল মাটিতে তৈরি হওয়া বিশালাকারের গর্ত যার মধ্যে বাড়ি, গাড়ি, মানুষ সব কিছুই তলিয়ে যেতে পারে। কেন হয়? সাধারণত কোনও জায়গায় চুনাপাথরের উপর যদি বালির স্তর থাকে, এবং সেখান থেকে কোনও নদী প্রবাহিত হয় বা অতিরিক্ত বৃষ্টি হয় তবে মাটি গলে বা বালি সরে গিয়ে গর্ত তৈরি হয়, তাকেই সিঙ্কহোল বলে। কিন্তু বর্তমানে আর্বান সিঙ্কহোল মানুষের কাছে চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর্বান সিঙ্কহোল মানে, যে সিঙ্কহোল কোনও শহরে, মানুষের বসবাসকারী অঞ্চলে হঠাৎ তৈরি হচ্ছে। এমনিতে কয়েক দশক, এমনকি শতাব্দী অবধি লেগে যায় স্বাভাবিক এবং প্রাকৃতিক ভাবে একটি সিঙ্কহোল তৈরি হতে। কিন্তু মানুষের কাজের ফলে এই সিঙ্কহোল তৈরি হওয়ার যে গতি, তা অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে বর্তমান সময়ে। ইদানিং তো রাতারাতি ঘটছে ব্যাপারগুলো। শেষ পাঁচ ছয় বছরে সিঙ্কহোল তৈরি হওয়ার ঘটনা এক লাফে অনেকটা বেড়েছে। মনে করা হচ্ছে, বিশ্ব উষ্ণায়ন এবং জলবায়ু পরিবর্তনই হচ্ছে এর মূল কারণ। পাশাপাশি ভূগর্ভস্থ জলের স্তর নেমে যাওয়ায় মাটির নিচের অংশ ফাঁপা হয়ে যাচ্ছে। এবং তার উপর থাকা সুউচ্চ বাড়ি, বা কারখানা বা গাড়ির ভার না নিতে পেরেই রাতারাতি মাটি ধসে গিয়ে এই সিঙ্কহোল তৈরি হচ্ছে

     

    আরও পড়ুন: ক্রমশ বাড়ছে বজ্রপাত, সচেতনতাই বাঁচার মন্ত্র

     

    আর্বানাইসেশনে বা নগরায়নের সঙ্গে ওতপ্রোভাবে জড়িয়ে ব্যাপারটি। ভূমিক্ষয়, ভূগর্ভস্থ জলস্তর নেমে যাওয়া, অতিরিক্ত মিথেন গ্যাস তৈরি হওয়ার পাশাপাশি কনস্ট্রাকশন, ড্রিলিং, খনিজ উত্তোলনের কাজ, খনন কাজের পর ঠিকঠাক মাটি দিয়ে জায়গা না ভরাট করা প্রভৃতি কারণ রয়েছে এই ভয়াবহ গর্ত তৈরি হওয়ার নেপথ্যে। 

     

     

     

    এই বছর এখনও অবধি প্রায় 100 টিরও বেশি সিঙ্কহোল বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় তৈরি হয়েছে। মাত্র এক মাসে তুরস্ক, ইতালি, মেক্সিকো, ইজরায়েল এবং ভারতে ছয়টি সিঙ্কহোল তৈরি হয়েছে। কটদিন আগে মুম্বাইয়ের একটি আবাসনের পার্কিং লটে দাঁড়িয়ে থাকা এক গাড়ি এমনই এক তৈরি হওয়া সিঙ্কহোলে পুরোপুরি ডুবে যায় চোখের নিমেষে। সেই ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায় রীতিমতো। তুরস্কেও এই ঘটনা হঠাৎই বৃদ্ধি পায়। 2020-র ডিসেম্বরে ক্রোয়েশিয়ায় 100টির বেশি সিঙ্কহোল তৈরি হয়েছিল। ফলে এভাবে সিঙ্কহোল তৈরি হওয়ার হার বৃদ্ধি পাওয়ায় আলোচনায় উঠে আসে বিষয়টি। 

     

    আরও পড়ুন: ত্রাণের প্লাস্টিকে দূষণের পাহাড় জমছে সুন্দরবনে

     

    গবেষক এবং ভূতত্ত্ববিদ নীলাঞ্জনা সাহা জানান, ‘একটি জায়গায় যখন হরাইজন্টাল ডেভেলপমেন্টের থেকে ভার্টিক্যাল ডেভেলপমেন্ট বেশি হয়, তখন মাটির উপর চাপ সৃষ্টি হয়। একইসঙ্গে বহুতলের আবাসিকদের জন্য জলের চাহিদাও বাড়ে। ফলে যখন মাটির নিচে জলস্তর সরে ফাঁপা হয়ে যায়, তখন মাটির উপরে চাপ অনেক বেশি থাক। যে ভার মাটি আর বহন করতে না পারায় সেই নির্দিষ্ট অংশটা ধসে পড়ে। বর্তমানে আর্বান সিঙ্কহোলের সমস্যাটা বেড়েছে বিশ্ব উষ্ণায়নের পাশপাশি অপরিকল্পিত নগরায়নের ফলে।' কিন্তু এর থেকে মুক্তির উপায় কী? গবেষক সাহা বলেন, ‘ইনফিল্ট্রেশনের ব্যবস্থা করতে হবে। প্রয়োজনে মাটির জল ধরে তা মাটির নিচে প্রবেশের ব্যবস্থা করতে হবে, যাতে খানিকটা হলেও ভারসাম্য বজায় থাকে। একইসঙ্গে খনন কাজ হলে সেখানে ঠিক করে মাটি দিয়ে ভরাট করতে হবে। কোনও জায়গায় বহুতল বানানোর আগে সেই জায়গার মাটির নিচের অবস্থা, তার গঠন সঠিক ভাবে যাচাই করতে হবে, তবে হয়তো খানিকটা সুরাহা হলেও হতে পারে।'


    শুভস্মিতা কাঞ্জী - এর অন্যান্য লেখা


    দীর্ঘ লড়াইয়ের পর আজ শ্বেতাকাত্তির জয়ের স্বীকৃতি এক দিনের জন্য কানাডার কনসাল জেনারেল পদ।

    যেমন তেমন গাছ লাগিয়ে বনসৃজন মোটেই পরিবেশ রক্ষা এবং জলবায়ু পরিবর্তনের সমাধান নয়।

    কোভিড হয়ে হাসপাতালে ভর্তি, নরক যন্ত্রণা ভোগ ও কার্যত বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু।

    অঙ্ক আর ফিজিক্স ছাড়াও ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার প্রস্তাব প্রত্যাহার AICTE-র।

    কোথাও নৌকো ভাসছে, কোথাও বা এক হাঁটু জল, একরাতের বৃষ্টিতে বেহাল অবস্থা বেহালার।

    অপরিকল্পিত নগরায়নের ফল আর্বান সিঙ্কহোল-4thpillars

    Subscribe to our notification

    Click to Send Notification button to get the latest news, updates (No email required).

    Not Interested