×
  • নজরে
  • ছবি
  • ভিডিও
  • আমরা

  • ধনখড়ের খাপ আর খাপের ধনখড়!

    সুদীপ্ত সেনগুপ্ত | 25-06-2022

    ধনখড়ের খাপ আর খাপের ধনখড়

    ধনখড় নামটা গত দুদিনে দুভাবে খবরে এসেছে।

    এক, কলকাতার রাজভবন নিবাসী ধনখড় বলেছেন, কলকাতা হচ্ছে অবসরপ্রাপ্তদের শহর, এর সবই অতীত, বর্তমানে দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া হাল।

    দুই, অগ্নিপথ-এ যাতে কোনওভাবেই তরুণরা যোগদান না করে, তার জন্য হিন্দিভাষী উত্তরভারতে জাতভিত্তিক খাপ পঞ্চায়েতগুলি এখন ফতোয়া জারি করছে এবং ধনখড় খাপের কঠোর অগ্নিপথ বিরোধী ফরমানের খবর কাগজে বেরিয়েছে।

    জগদীপ ধনখড় স্বজাতের খাপের ফরমান নিয়ে এখনও কিছু টুইট করেননি, তাঁর মতামত আমরা জানি না। কিন্তু কয়েক মাস আগে কলকাতার রাজভবনে নিয়োগ নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ মহুয়া মৈত্র যখন রাজ্যপালের বিরুদ্ধে স্বজনপোষণের অভিযোগ তুলেছিলেন, তখন তা ণ্ডন করতে এই ধনখড় বলেছিলেন, সুবিধাভোগী বলে যাঁদের কথা বলা হচ্ছে তাঁরা কেউ তাঁর আত্মীয় নন, এমনকী তাঁর নিজের জাতেরও কেউ নন! সুতরাং বোঝাই যায়, জাত ব্যাপারটা রাজ্যপালের মাথায় বেশ গুরুতরভাবে জাঁকিয়ে বসা একটা বিষয়! লক্ষণীয়, পশ্চিমবঙ্গে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে ভুরি ভুরি দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে; জাতের ভিত্তিতে অন্যায় সুবিধা দেওয়া হয়েছে এমন প্রমাণ তো দূরস্থান, অভিযোগ পর্যন্ত একটাও আসেনি।

    প্রায় তিন বছর কলকাতার লাটভবনে থেকেও এই ধনখড় আসলে কলকাতা, বাংলা, বাঙালি ইত্যাদি বিষয়গুলো বুঝতে পারেননি।

    তাই তিনি শুক্রবার স্বল্প পরিচিত একটি অডিটরদের সম্মেলনে গিয়ে বললেন, একদা আনন্দনগরী কলকাতা এখন অবসরপ্রাপ্ত মানুষদের শহর; দেশের জিডিপি-তে এখানকার কোনও অবদান নেই; একদা অর্থনীতি থেকে  সংস্কৃতি সবেতে অগ্রণী বাংলার এখন দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছে; এখানকার প্রতিভাবানদের এখন বাধ্য হয়ে কাজের জন্য অন্যত্র যেতে হয় ইত্যাদি ইত্যাদি।

    যে রাজ্যকে তিনি ‘পালন’ করছেন (অন্তত নিজেকে সেই রকম ভাবতে তিনি খুব ভালবাসেন!)তার সম্পর্কে আরেকটু সম্যক ধারণা প্রত্যাশিত ধনখড়ের থেকে। প্রথমত, ষাটোর্ধ বয়সের মানুষ যদি অবসরপ্রাপ্ত ধরা হয়, তবে জনসংখ্যায় তার অনুপাত পশ্চিমবঙ্গে সারা দেশের তুলনায় বেশি নয়; বরং সর্বশেষ 2011-এর জনগণনা অনুসারে সামান্য কম (রাজ্যে 8.5 আর দেশে 8.6 শতাংশ)। রাজ্যপালের ঘোষিত বয়স, 71; অর্থাৎ অবসর +11; খাপের অঘোষিত বয়স, 5000+; বেদের যুগ থেকে নাকি চলে আসছে!

    দেশের জিডিপি-তে অবদানের সুবাদে পশ্চিমবঙ্গের স্থান সারা দেশে পাঁচ নম্বরে। কলকাতা তথা বাংলা থেকে মেধার বহির্গমনকে ধনখড় দেখেছেন শুধু বাংলায় সুযোগের অভাবের পরিপ্রেক্ষিতে। আমরা এই কথা বলছি না যে, বাংলা তার ইতিহাসের সর্বশ্রেষ্ঠ সময়ে এখন বিরাজ করছে। কিন্তু মেধার বহির্গমনকে এভাবেও দেখা যায় যে, শ্রেষ্ঠ মেধা তার শ্রেষ্ঠ স্বচ্ছন্দ-ভূমি খুঁজে নিচ্ছে।

    ভেবে দেখতে গেলে, নরেন্দ্র মোদী যদি গুজরাতের সীমানায় আবদ্ধ থাকতেন, তবে কি সারা দেশ তাঁর ‘সেবার’ সুযোগ পেত?

    এই ধনখড় যদি ওই ধনখড় খাপের গণ্ডিতে আবদ্ধ থাকতেন, তবে কি কলকাতার লাটভবনে থাকতে পারতেন? বাঙালির ভূত ভবিষ্যৎ ইত্যাদি নিয়ে জ্ঞান দিতে পারতেন?

    পারতেন না। তাই বাংলা ও বাঙালি নিয়ে তাঁকে সঙ্ঘের খাপে ঢুকতে হয়েছে!

    #JagdipDhankar #GoernorWestBengal #CalcuttaPride #I_Love_Kolkata


    সুদীপ্ত সেনগুপ্ত - এর অন্যান্য লেখা


    তৃণমূলের কর্মী সমর্থক বলে তোলাবাজি করা গুণ্ডারা এলাকার বাসিন্দা প্রবীণ নেতা সৌগত রায়কে চেনে না!

    আগে সমাজ নিজেকে প্রশ্ন করুক কেন যৌন সম্পর্কসূচক শব্দের মধ্য দিয়েই ক্ষমতার দর্প ঘোষণা করতে হয়?

    রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী দ্রৌপদী মুর্মুর বিরুদ্ধে বিরোধীদের যশবন্ত সিনহা কোনও প্রার্থীই নন

    আবহাওয়ার উন্নতি সত্ত্বেও মুখ্যমন্ত্রীর অযৌক্তিক ঘোষণার মান রাখতে চাপ দিয়ে সমস্ত স্কুল বন্ধ করল

    পশ্চিমবঙ্গে শিক্ষা ক্ষেত্রে চাটুকারিতার রমরমার প্রমাণ তৃণমূল স্তরে অর্থনীতি নিয়ে উল্লেখযোগ্য গবেষণা

    সারা জীবন নাটক করছেন, মৃত্যুতে সযত্নে সেটাই এড়িয়ে গেলেন শম্ভু-দুহিতা শাঁওলী।

    ধনখড়ের খাপ আর খাপের ধনখড়!-4thpillars

    Subscribe to our notification

    Click to Send Notification button to get the latest news, updates (No email required).

    Not Interested